দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ কোনটি

গনোরিয়া রোগের ঘরোয়া চিকিৎসাদাউদ হলো একধরণের অস্বস্তিকর ধরণের রোগ। তাই এই দাউদের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আজকের এই আর্টিকেলে আমরা দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ কোনটি সেই সম্পর্কে আলোচনা করেছি। এর পাশা পাশি দাউদের সবচেয়ে ভালো মলম সম্পর্কে আলোচনা করেছি। তাই আপনি যদি এই দাউদের সমস্যার থেকে মুক্তি পেতে চান তাহলে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ে দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ কোনটি সেটি জেনে নিন।
দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ
আজকের আর্টিকেলটি যদি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়েন তাহলে আপনি দাউদের ট্যাবলেট এর নাম, দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ কোনটি, দাউদের ক্রিম এর নাম ও দাম, দাউদের সবচেয়ে ভালো মলম এবং সবশেষ দাউদের স্থায়ী চিকিৎসা সম্পর্কে জানতে পারবেন।

পেজ সূচিপত্রঃ

দাউদের ট্যাবলেট এর নাম

দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ সম্পর্কে জানার পূর্বে আপনাকে দাউদের ট্যাবলেট এর নামগুলো জানা উচিত হবে। কারণ আপনি যদি দাউদের জন্য কোন কোন ট্যাবলেট রয়েছে সেই সম্পর্কে না জানেন তাহলে তার মধ্যে থেকে ভালোটি বিবেচনা করতে পারবেন না। তাই চলুন এই পাঠের মধ্য থেকে আমরা দাউদের ট্যাবলেট এর নামগুলো জেনে নেই।

দাউদ হল এক ধরনের শতরাগ জনিত ভাইরাসের কারণে হয়ে থাকে। দাউদের রোগকে ছোয়াচে রোগ বলা হয়। কারণ এই রোগ একজনের শরীর থেকে অন্যজনের শরীরে শুধুমাত্র স্পর্শের মাধ্যমে ছড়িয়ে যায়। তবে গরমের সময়ে এই রোগটি অনেক বেশি পরিমাণে দেখতে পাওয়া যায়। এই রোগটি আমাদের শরীরে বিভিন্ন জায়গায় হয়ে থাকে। যেমন ঘাড়ে, পায়ে, হাতে, বুকে, পিঠে ইত্যাদি।

দাউদ রোগটি সাধারণত গোলাকৃতির অথবা খর্বাকৃতির হয়ে থাকে। দাউদের প্রধান বৈশিষ্ট্য হলো এটি প্রথমে ছোট ছোট দানার মত ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র আকারে হয়ে থাকে। পরবর্তী সময়ে আস্তে আস্তে আরো বড় আকার ধারণ করে। এই রোগটি প্রাথমিক অবস্থায় অনেক সীমিত আকারে দেখা দেয়। তবে আপনি যদি প্রাথমিক অবস্থায় এর চিকিৎসা না করেন অবহেলায় ফেলে রেখে দেন তাহলে এটি আপনার শরীরে আরো অনেক জটিল সমস্যায় সৃষ্টি করতে পারে।

তাই আপনারা যদি কেউ দাউদের সমস্যার সম্মুখীন হন তাহলে সবার প্রথমেই আপনাকে চিকিৎসা নেওয়া উচিত। তবে সবথেকে ভালো হয় যদি আপনি একজন চর্ম রোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের থেকে পরামর্শ গ্রহণ করেন। এই দাউদের জন্য বেশ কিছু অ্যান্টিবায়োটিক ট্যাবলেট বাজারে রয়েছে। সেই সকল দাউদের ট্যাবলেট এর নাম গুলো নিম্নে তুলে ধরা হলো।
  • Canazole
  • Derma 50 MG
  • Fluconazole
  • Fungitac cream
  • Flugal
  • Grisovin Fp 500 MG
  • Intracon
  • Itra 100 MG
  • Lucan-R
  • Lulizol Cream
  • Oxyphan lotion
  • Phexin 500 MG
  • Rainil
  • Terbin 250 MG
  • Vori 200 MG
দাউদের রোগের জন্য ব্যাবহারকৃত কিছু ঔষধ ও ক্রিমের নাম উপরে উল্লেখ করা হলো। আপনারা যারা এই দাউদের সমস্যার ভুগছেন তারা চাইলের এই সকল ঔষধগুলো ব্যাবহার করতে পারেন। তবে অবশ্যই একজন ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করা উচিত হবে। কারণ আমাদের সকলের ত্বক একই নয়। তাই ত্বক ভেদে আলাদা আলাদা ধরণের ঔষধ ব্যাবহার করতে হতে পারে।

দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ কোনটি

উপরের পাঠে আমরা সকলেই দাউদের রোগের জন্য ব্যাবহারকৃত কিছু ঔষধ/ট্যাবলেটের নাম এবং ক্রিমের নাম জানতে পেরেছি। এখন এই পাঠে আমরা জানবো দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ কোনটি সেই সম্পর্কে। তাই আপনারও যদি এমন দাউদের সমস্যা হয়ে থাকে তাহলে আপনি উপরের উল্লিখিত ঔষধগুলো ব্যাবহার করতে পারেন। তবে দাউদের জন্য কিছু ভালো ঔষধের নাম নিচে তুলে ধরা হলো।
দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ
ফ্লুক্সোটিনঃ এই ওষুধটি ব্যবহার করার ফলে আমাদের শরীরে ছত্রাকের আক্রমণ এবং ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ থেকে রক্ষা করে। যার ফলে আমাদের শরীরের দাউদের সকল প্রকারের জীবাণুর ধ্বংস করে ফেলে খুব সহজেই। এই ওষুধটি আপনি বর্তমান সময়ে ০৭ টাকায় কিনতে পারবেন।

ফ্লুজো (Flujo): খুবই অল্প সময়ের মধ্যে চুলকানি এবং ছত্রাক জনিত যেকোনো ধরনের সমস্যা থেকে রক্ষা করার জন্য খুব বেশি ফলদায়ক এই ঔষধটি। এই ঔষধ আপনি বাজারে গিয়ে যে কোন ফার্মেসিতে জিজ্ঞাসা করলে পেয়ে যাবেন। এই ওষুধটির বর্তমান দাম ৯ টাকা।

কসফ্লু ট্যাবলেট (Cosflu tablets): এই ওষুধটি দাউদ সৃষ্টিকারী ছত্রাকের সংক্রমণ থেকে রক্ষা করার জন্য কাজ করে থাকে। এই ওষুধে রয়েছে অ্যান্টিবায়োটিক এবং এন্টিফাঙ্গাল এই দুই ধরনের উপাদান। যেটি আমাদের দাউদের রোগ থেকে রক্ষা করার জন্য অনেক বেশি উপকারী। বর্তমান সময়ে এই ওষুধের বাজার মূল্য ৮ টাকা।

ফ্লুজল ৫০ (Fluzol 50): এই ওষুধটি ব্যবহার করার ফলে আমাদের শরীরের চুলকানি সৃষ্টিকারী ছত্রাকের সংক্রমনের কোষকে ভেঙে দেয়। এবং দাউদ উৎপাদনকারী সকল ধরনের ছত্রাক কে আমাদের শরীর থেকে বিতাড়িত করে। এছাড়াও আমাদের শরীরের যেকোনো ধরনের চুলকানির সমস্যা সমাধানের জন্য এই ঔষধটি অনেক বেশি কার্যকরী। এই ওষুধটির বর্তমান বাজার মূল্য ৭.২০ টাকা।

দাউদের জন্য সব থেকে ভালো ঔষধের মধ্যে এই চারটি ঔষধের কথায় উল্লেখ করা যায়। তবে বাজারে অনেক ধরনের দাউদের ঔষধ এসে গিয়েছে। এই ৪টি ঔষধের পাশাপাশি আরও বেশ কিছু ভালো ঔষধ রয়েছে। সেগুলো হলোঃ
  • ফ্লুগাল (Flugal)
  • ইন্ট্রাকন (Intracon)
  • রাইনিল (Rainil)
  • লুকান আর (Lucan-R)
আপনি চাইলে এই চারটি ঔষধের ব্যবহার করে দেখতে পারেন। তবে সবথেকে বেশি ফলদায়ক চিকিৎসা নেওয়ার জন্য অবশ্যই একজন চর্ম বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের সাথে পরামর্শ নিবেন। তাহলে তিনি আপনার রোগ দেখে সঠিকভাবে নির্ণয় করে ঔষধ দিয়ে দিবেন। সেটি যদি আপনি ব্যবহার করেন তাহলে আপনি কিছুদিনের ভিতরে উপকার পাবেন। আশা করছি আপনাকে এই বিষয়ে বোঝাতে পেরেছি।

দাউদের ক্রিম এর নাম ও দাম

আমরা সকলেই ইতিপূর্বে দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ কোনটি সেই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছি। আজকের এই পাঠের মধ্যে আমরা জানবো দাউদের ক্রিম এর নাম ও দাম সম্পর্কে। এখন বাজারে দাউদের জন্য অনেক ধরণের ক্রিম পাওয়া যায়। তবে সব ক্রিম ব্যাবহার করা উচিত হবে না। তাই কিছু ভালো ক্রিমের নাম ও সেই ক্রিমের দামগুলো সম্পর্কে নিচে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো। চলুন তাহলে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।
  • ফানজাইরক্স ক্রিম (Fanzyrox cream)
  • রেনাসন ক্রিম (Renaissance cream)
  • ক্লোপাইরক্স ক্রিম (Clopirox cream)
  • ইকোনেট ক্রিম (Econet cream)
  • লুলিজল ক্রিম (Lulizol cream)
দাউদের জন্য উপরের উল্লিখিত ক্রিমগুলো ব্যাবহার করা হয়ে থাকে। নিম্নে এই সকল ক্রিমগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা তুলে ধরা হলো।
ফানজাইরক্স ক্রিম (Fanzyrox cream): ছত্রাক জনিত সংক্রমণের কারণে আমাদের শরীরে দাউদের জন্ম হয়। তবে এই দাউদের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য এই ক্রিমটি ব্যাবহার করতে পারেন। এই ক্রিমটি দিনে প্রতিদিন দুইবার আক্রান্ত স্থানে ব্যবহার করতে হয়। বর্তমান সময়ে এই ক্রিমটির দাম ৯৫ টাকা।

রেনাসন ক্রিম (Renaissance cream): এই ক্রিমটি হলো একটি অ্যান্টিফাঙ্গাল ক্রিম। যার কারণে এটি আমাদের শরীরের সকল ধরনের ছত্রাক জনিত সংক্রমণের জীবাণুকে ধ্বংস করতে পারে। বর্তমান সময়ে এই ক্রিমটি বাজার মূল্য ৫৫ টাকা।

ক্লোপাইরক্স ক্রিম (Clopirox cream): দাউদ বা চুলকানি থেকে মুক্তি পেতে এই ক্রিমটি কার্যকরী হতে পারে আপনার জন্য। এখন এই ক্রিমের বর্তমান বাজার মূল্য ১১০ টাকা।

ইকোনেট ক্রিম (Econet cream): দাউদ বা চুলকানির সমস্যার সমাধানের জন্য এই ক্রিমটি হতে পারে আপনার জন্য অনেক আনন্দ। তাই একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ব্যবহার করা উচিত। এই ক্রিমের বর্তমান বাজার মূল্য ৩৫ টাকা।

লুলিজল ক্রিম (Lulizol cream): দাউদের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য এই ক্রিমটি অনেক বেশি কার্যকরী। এই ক্রিমটি ব্যবহার করার ফলে খুবই বেশি আরাম অনুভব করা যায়। বর্তমান সময়ে বাজারে এই গ্যারেন্টের দাম ১৭০ টাকা।

উপরে উল্লেখিত আমরা বেশ কিছু দাউদের জন্য ব্যবহৃত ভালো ক্রিমের নাম এবং দাম গুলো উল্লেখ করেছি। এছাড়াও দাউদের ক্রিম হিসেবে আরো অনেকগুলো ক্রিম ব্যবহার করা হয়ে থাকে। সেই সকল ক্রিমের নাম এবং দামগুলো নিম্নে উল্লেখ করা হলো। চলুন দেখে নেওয়া যাক।

দাউদের ক্রিম এর নাম

ক্রিমের বর্তমান বাজার মূল্য

Lucazen Cream

৯৫ টাকা

Ring Guard 12 mg

২৫০ টাকা

Antifungal cream

৩২০ টাকা

Davison Cream

৫৫ টাকা

Renaissance cream

৬৫ টাকা

Lucazol Cream

১১০ টাকা

Pevisone

৯০ টাকা

Elvina Cream

৮৫ টাকা

Fanzyrox Cream

১১০ টাকা

Econet cream

৪১০ টাকা

Mycofin Cream

৭০ টাকা

Topicazole plus

২১০ টাকা

Infud Cream

৬০ টাকা

Clopirox cream

২৬০ টাকা

Terbex cream

৩৫ টাকা

দাউদের সবচেয়ে ভালো মলম

দাউদের চিকিৎসার জন্য অনেকেই মলম ব্যাবহার করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করে থাকেন। তাই তারা দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ কোনটি এই সম্পর্কে জানার পরেই জানতে চান দাউদের সবচেয়ে ভালো মলম কোনটি। আপনি যদি এমন দাউদের জন্য মলম ব্যাবহার করতে চান তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক।
দাউদের সবচেয়ে ভালো মলম
দাউদের সবচেয়ে ভালো মলম এর নাম যদি বলতে হয় তাহলে সবার প্রথমেই উঠে আসে ডারমিন মলম এর কথা। তবে এই মলম টি ব্যবহারের কিছু নিয়মকানুন রয়েছে। সেটি হল এই মলমটি শরীরের দাউদে আক্রান্ত স্থানে প্রতিদিন দুই থেকে তিনবার লাগাতে হবে। যখনই কিরিমটি ব্যবহার করা হবে আক্রান্ত এই স্থানে তার পূর্বেই ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিতে হবে।

তবে এই ক্রিমটি ব্যবহার করার পরে অথবা আগে কোনভাবে আক্রান্ত স্থানে চুলকানো যাবে না। এই ক্রিমটি যদি আপনি কিছুদিন ব্যবহার করেন তাহলেই এই রোগ থেকে আপনি মুক্তি পেতে পারেন। এই দুজনকে ব্যবহারের কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রয়েছে। তবে এই সকল পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলো খুব কম মানুষের মধ্যেই দেখা যায়। তবে যদি এই ক্রিমের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয় তাহলে অবশ্যই একজন ডাক্তারের পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে। এই ক্রিমের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলো হলো
  • নিশ্বাস নিতে কষ্ট হওয়া
  • দাউদে আক্রান্ত স্থানটিতে জ্বালা অনুভূত হওয়া
  • লালচে ভাব চলে আসা
  • শরীরে তীব্র পরিমাণে এলার্জি দেখতে পাওয়া
  • মুখে ফোলা ভাব দেখতে পাওয়া
দাউদের সবচেয়ে ভালো মলম হিসেবে ডারমিন মলম এর পরেই আরো একটি মলমের কথা বলতে হয়। সেই মলমটির নাম হলো লুলিজল ক্রিম। এই ক্রিম ব্যাবহারেও বেশ কিছু উপকার পাওয়ার পাশাপাশি রয়েছে কিশু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও। চলুন তাহলে এখন সেই সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।
ব্যাবহারের নিয়মঃ এই ক্রিমটি প্রতিদিন আক্রান্ত স্থানে দুই থেকে তিনবার ব্যবহার করতে হবে। তবে কোনভাবেই অতিরিক্ত পরিমাণে ব্যবহার করা যাবে না। তাহলে অনেক বেশি পরিমাণে চুলকানি ভাব অনুভূত হতে পারে। এই ক্রিমটি যে সকল ব্যক্তিগণ প্রাপ্তবয়স্ক রয়েছেন তারা ব্যবহার করতে পারবেন কোন প্রকার অসুবিধা ছাড়াই। তবে আক্রান্ত শিশুদের ক্ষেত্রে অবশ্যই একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে তারপর এই ক্রিম ব্যবহার করতে হবে।

এই ক্রিমের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ এই মলম ব্যবহারে বেশ কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। সেগুলো সম্পর্কে অবশ্যই আমাদের সতর্ক থাকা উচিত। এই ক্রিম ব্যবহার করার ফলে যে সকল পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলো দেখা দিতে পারে সেগুলো নিম্নে উল্লেখ করা হলো।
  • জ্বালা পোড়া করা
  • অতিরিক্ত চুলকানি
  • লালভাব চলে আসা
বর্তমান সময়ে এই মলমের দাম 180 টাকা। তবে বাজারে এর দাম কিছুটা কম অথবা বেশি হতে পারে। তবে এই ক্রিমের ১০ গ্রামের দাম হলো 100 টাকা। এই ক্রিমটি এখন বাজারে ১০ গ্রাম ও ২০ গ্রাম এই দুটি আকারে পাওয়া যায়। আপনি চাইলে যে কোন একটি কিনে ব্যবহার করতে পারেন।

দাউদের চিকিৎসার জন্য মলম ব্যবহার খুবই জনপ্রিয় একটি চিকিৎসা পদ্ধতি। এই দাউদে আক্রান্ত হলে অনেকেই আছেন যারা বাজার থেকে বিভিন্ন ধরনের দাউদের জন্য মলম কিনা ব্যবহার করেন। তবে আপনি সর্বোচ্চ ফলাফল পাওয়ার জন্য অবশ্যই একজন ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে তারপরে সেই সকল মলমগুলো ব্যবহার করবেন। না হলে এটি হতে পারে আপনার হিতের বিপরীত। তাই অবশ্যই আপনাকে ডাক্তারের পরামর্শ মোতাবেক মলম গুলো ব্যবহার করা উচিত।

দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ সম্পর্কে সাধারণ জিজ্ঞাসা (FAQ)

প্রশ্নঃ দাউদের জন্য কোন ক্রিম ভালো হবে?
উত্তরঃ দাউদের জন্য ব্যাবহৃত ভালো ক্রিমগুলো হলো
  • Candistat 2% Cream
  • রেক্সগার্ড‌ ২% ক্রিম
  • রেলিনগার্ড ২ % ক্রিম
  • ফাঙ্গিটপ ২% ক্রিম
প্রশ্নঃ দাউদ এর জন্য ভাল মলম কোনটি?
উত্তরঃ দাউদ এর জন্য সবথেকে ভালো মলম হিসেবে ডারমিন মলম এর কথা উল্লেখ করা যেতে পারে। কারণ এটি ব্যাবহার করলে কিছুদিনের মধ্যেই খুব সহজেই দাউদের সমস্যার সমাধান হয়ে যায়।

প্রশ্নঃ দাউদ রোগের ঔষধ কি?
উত্তরঃ দাউদ রোগের ঔষধ হিসেবে কিছু ঔষধের ব্যাবহারে পরামর্শ প্রদান করা হয়। সেগুলো হলো
  • ক্লট্রিমাজোল
  • মাইকোনাজোল
  • টার্বিনাফিন
  • কিটোকোনাজল

শেষ কথা

আজকে আমাদের এই আর্টিকেলের প্রধান আলোচনার বিষয় ছিলো দাউদের সবচেয়ে ভালো ঔষধ কোনটি সেই সম্পর্কে। আশা করছি আপনি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ার মাধ্যমে এই বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। যদি আর্টিকেলটি আপনার কাছে ভালো লেগে থাকে তাহলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। এমন আরো তথ্যবহুল আর্টিকেল প্রতিদিন পড়ার জন্য আমাদের সাথেই থাকুন। ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

পেপারস্পট২৪ এর নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url