শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার

স্থায়ী ফর্সা হওয়ার উপায়প্রিয় পাঠক, আমরা এমন অনেকেই আছি শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে জানি না। আপনি যদি শীতকালে কেনো আমাদের ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যায় তার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে না জেনে থাকেন তাহলে আজকের এই আর্টিকেলটি আপনার জন্যই। কারণ এই সম্পূর্ণ আর্টিকেলের মধ্যে আমরা শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার
আজকের আর্টিকেলটি আপনি যদি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়তে থাকেন তাহলে আপনি ঠোঁট ফাটে কোন ভিটামিনের অভাবে, শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ, অতিরিক্ত ঠোঁট ফাটার কারণ কি, গরমে ঠোঁট ফাটার কারণ, ঠোঁট ফাটার ক্রিম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

পেজ সূচিপত্রঃ

ভূমিকা

বছর ঘুরে আবার আমাদের মাঝে শীতের আগমণ ঘটলো। এই শীতকালে তাপমাত্রা অনেকটাই কম থাকে যার ফলে বাতাসে আর্দ্রতা অনেক বেশি থাকে। যার কারণে ঠান্ডা বাতাস বয়। এবং কম বেশি আমাদের সকলেরই ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যায়। আপনার ও যদি এমন সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন তাহলে আপনি আজকের আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

আপনি যদি এই আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে সম্পূর্ণ পড়েন তাহলে আপনি শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। তাহলে চলুন এখন বেশি বক বক না করে বিস্তারিত আলোচনায় যাওয়া যাক।

শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ

শীতকালে আপনারা সকলেই লক্ষ্য করে থাকবেন যে আমাদের শরীরের চামড়া হটাৎ করেই শুকিয়ে যায়। কিন্তু আমরা জানি না কেন এমনটা হয়ে থাকে। ইতোপূর্বে আমরা জানতে পেরেছি ঠোঁট ফাটে কোন ভিটামিনের অভাবে। এখন আমরা জানবো কেনো শীতকালে আমাদের ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যায় সেই সম্পর্কে।

শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ বলতে গেলে অনেক কারণই উঠে আসে। তার থেকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ কারণ নিম্নে তুলে ধরা হলো। যার মধ্য থেকে আপনি সঠিকভাবে জানতে পারবেন ও বুঝতে পারবেন। তাহলে চলুন এই পর্যায়ে আমরা শীতকালে কোন কারণে আমাদের ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যায় তার সকল কারণগুলো সম্পর্কে।
  • শীতকালের ঠান্ডাবাতাসের জন্য।
  • শীতকালে বাতাসের আপেক্ষিক আদ্রতা বেশি থাকে বলে।
  • শীতকালে আমাদের শরীরের ঘাম কম হয় বলে।

ঠোঁট ফাটে কোন ভিটামিনের অভাবে

আপনি আমি সহ প্রায় সকলেই এই সমস্যার সম্মুখ্যীন হই প্রায় সময়ই। আপনি হয়ত জানেন না যে আমাদের যে ঠোঁট ফাটে তা মূলত আমাদের শরীরের কিছু ভিটামিনের অভাবে এমনটা হয়ে থাকে। আপনি যদি জেনে থাকেন কোন কোন ভিটামিনের অভাবে এমনটা হয় তাহলে সেই অনুযায়ি আপনি পদক্ষেপ গ্রহণ করলেই এই সমস্যা নিয়ন্ত্রে নিয়ে আসতে পারবেন। তাহলে চলুন এখন জেনে নেওয়া যাক ঠোঁট ফাটার কারণ এবং ঠোঁট ফাটে কোন ভিটামিনের অভাবে।
শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ
আবহাওয়াঃ শীতকালে আমাদের ঠোঁট ফাটার মূল কারণ হিসেবে দায়ি করা হয় আবহাওয়া কে। সেই সময় বাতাসের আর্দ্রতা অনেক কম থাকে, যার কারণে আমাদের প্রচুর পরিমাণে ঠোঁট ফেটে যায়। এছাড়াও আরো বিভিন্ন কারণ রয়েছে যেগুলোর কারণে আমাদের ঠোঁট ফেটে যেতে পারে। যেমন আমাদের শরীরে খাদ্যের পুষ্টিগুণ ও ভিটামিনের অভাব।

ঠোঁট ফাটার কিছু সাধারণ কারণঃ আমাদের ঠোঁট কিছু সাধারণ কারণেও ফেটে যেতে পারে। সেগুলো হলোঃ
  • আমাদের শরীরে ভিটামিনের অভাবের কারণে।
  • শুষ্ক আবহাওয়ার কারণে।
  • ঠিক মতোন ঠোঁটের যত্ন নেওয়া না হলে।
  • পর্যাপ্ত পরিমাণে পুষ্টি না পেলে।
  • শুষ্ক ত্বকের কারণে। ইত্যাদি।
ভিটামিন - বি এর অভাবঃ আমাদের ঠোঁট ফাটার জন্য প্রধান কারণ হিসেবে বিশেষজ্ঞরা ভিটামিন - বি এর অভাবকেই প্রধাণত দায়ি করে থাকেন। ভিটামিন বি এর কিছু উপাদান রয়েছে যেগুলোর জন্য আমাদের ঠোঁট ফেটে যায়। সেগুলো হলো
  • ভিটামিন B2
  • ভিটামিন B6
  • ভিটামিন B9
  • ভিটামিন B12
খনিজ উপাদানের ঘাটতিঃ নির্দিষ্ট পরিমাণে কিছু ভিটামিনের ঘাটতি ছাড়াও বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কিছু খনিজ উপাদানের অভাবেও আমাদের ঠোঁট ফেটে যেতে পারে। খনিজ উপাদানের কথা বলতে গেলে প্রথমেই যে সকল উপাদান উঠে আসে সে দুটি হল আয়রন ও জিঙ্ক।

আয়রনঃ আমাদের ঠোঁট ফেটে যাওয়ার জন্য অন্যতম একটি দায়ী হলো আয়রন। আয়রন আমাদের শরীরের রক্ত অক্সিজেনের পরিবহন এবং লোহিত কণিকা উৎপাদন এছাড়াও আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ শারীরিক প্রক্রিয়ার কাজ করে থাকে। আমাদের শরীরে আয়রনের অভাবে মুখ খুলে যাওয়া, প্রদাহজনিত সমস্যা, এবং ত্বকের শুষ্কতা দেখা দেয়। যার কারণে আমাদের ত্বকে ফাটল ধরতে শুরু করে।

জিঙ্কঃ আমাদের শরীরে যদি প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে জিঙ্ক সরবরাহ না হয়ে থাকে, তাহলে সবথেকে বেশি আমাদের ত্বকের উপর প্রভাব পড়ে। যার ফলে আমাদের ত্বক জ্বালাপোড়া করে এবং ত্বক শুকিয়ে যায় এবং ত্বক ফাটার মতোন আরো নানান সমস্যা দেখা দেয়।

আশা করছি আপনি এতোক্ষণে ঠোঁট ফাটে কোন ভিটামিনের অভাবে এই বিষয়টি বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। একটু পরে আপনারা ঠোঁট ফাটা কিভাবে দূর করা যায় এই সকল বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

অতিরিক্ত ঠোঁট ফাটার কারণ কি

শিতকালে আমাদের ঠোঁট ফেটে যাওয়া একটি অনেক স্বাভাবিক বিষয়। এই সময় আমাদের ঠোঁট অনেক পরিমাণে শুষ্ক থাকে যার প্রতিশ্রুতিতে আমাদের ঠোঁট ফাটতে দেখা যায়। একে তো আমাদের শরীরের অন্যান্য জায়গার তুলনায় আমাদের ঠোঁটের চামড়া পাতলা, তার অপর আবার এর অবস্থান নাকের নিচেই। তাই আমাদের নিঃশ্বাসের সাথে যেই গরম বাতাস বের হয়ে আসে তার ফলে আমাদের ঠোঁটকে আরো শুকিয়ে দেয় এবং যার ফলে আমাদের ঠোঁট ফাটতে শুরু করে।

আমাদের এই যে ঠোঁট ফাটে তার তো একটা পরিমণ আছে তাই নাকি। কিন্তু আপনারা অনেক সময় লক্ষ্য করে থাকবেন যে আমাদের ঠোঁট পরিমাণের তুলনায় অনেক বেশি পরিমাণে ফাটতেছে। এখন আমরা জনাবো অতিরিক্ত ঠোঁট ফাটার কারণ কি। চলুন তাহলে কারণগুলো জেনে নেওয়া যাক। অতিরিক্ত ঠোঁট ফাটার কারণ গুলো নিচে দেওয়া হল
  • পুষ্টিহীনতা ও ভিটামিনের অভাব।
  • প্রখর সূর্যের তাপ ও পানিশূন্যতা।
  • বারবার জিহ্বা দিয়ে ঠোঁট চাটার অভ্যাস।
  • বিভিন্ন ধরনের ওষুধ খাওয়া।
  • অ্যালার্জির সমস্যার কারণে।
  • থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে।
  • শরীরে ভিটামিন বি কমপ্লেক্সের অভাব হলে।
  • সাইট্রাস–জাতীয় ফল বেশি খেলে ঠোঁট ফেটে যেতে পারে।
এই সকল উল্লেখযোগ্য কিছু কারণ ছাড়াও আরো কিছু কারণ রয়েছে যার কারণে আমাদের ঠোঁট ফেটে যেতে পারে। সেগুলো হলো ঠোঁট কামড়ানোর মতো অভ্যাস থাকার কারণে ঠোঁট ফেটে যেতে পারে, আবার অনেক সময় ঠোঁটে লাগানো লিপস্টিক, লিপবাম বা লিপজেল সহ্য না হলে চুলকানি হয়ে ঠোঁট ফাটতে পারে।

সূত্রঃ প্রথম আলো

ঠোঁট ফাটা কিভাবে দূর করা যায়

বর্তমানে আমাদের মাঝে শুরু হয়ে গেছে শীতের ঠান্ডা হাওয়ার আমেজ। যার ফলে উত্তরা হাওয়া বইছে। আর এরই ফলে বাতাসের আর্দ্রতা ও কমেছে। যার প্রতিশ্রুতিতে আমাদের ত্বকের পাশাপাশি আমাদের ঠোঁটও শুষ্ক হয়ে গিয়েছে। এই ঠোঁট ফাটা আমাদের অনেক সময় যন্ত্রণারও কারণ হয়ে উঠে। এবং কখনও কখনও ঠোঁট ফেটে রক্তক্ষরণ ও হয়।
ঠোঁট ফাটা কিভাবে দূর করা যায়
এই সকল বাধা বিপত্তি ঠেকাতে আমরা অনেকেই চ্যাপস্টিক আর লিপবাম ব্যবহার করে থাকি। এই সকল উপাদান ব্যাবহারের ফলে আমরা হয়ত সাময়িক স্বস্তি পাই, কিন্তু এই টা আমাদের দীর্ঘমেয়াদি সমাধান দেয় না। তাই ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে আমরা নিম্নে কিছু প্রাকৃতিক উপাদানের কথা বলেছি। যেগুলো ব্যাবহার করলে আপনি সহযেই চিরস্থায়িভাবে ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে পারবেন।

এবং এর পাশাপাশি কিছু নিয়ম মেনে চললে আপনি আপনি সারাজীবণে আর ঠোঁট ফাটার সমস্যায় পরবেন না। চলুন তাহলে এখন আমরা জেনে নেই ঠোঁট ফাটা কিভাবে দূর করা যায় এই সম্মন্ধে এবং ঠোঁট ফাটা দূর করার প্রাকৃতিক উপায়গুলো সম্পর্কে। যেগুলো আপনি নিয়োমিত ব্যাবহার করলে আপনি চিরতরে এই ঠোঁট ফাটার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। সেগুলো হলোঃ
  • অ্যালোভেরা
  • নারকেল তেল
  • মধু-ভ্যাসলিন
  • ঘি
  • চিনির স্ক্রাব
  • শসা
  • গ্রিন টি
  • দুধ
  • গ্লিসারিন
  • অলিভ অয়েল
এইগুলোর মধ্যে থেকে যেকোন একটি অথবা দুইটি আপনি যদি কিছুদিন নিয়োমিত ব্যাবহার করে থাকেন তাহলে আপনার ঠোঁট নরম ও মসৃণ হবে এবং ঠোঁট অনেক উজ্জ্বল দেখাবে। আপনি খুব বেশি না ৩ দিন ব্যাবহার করলেই এর উপকার সম্পর্কে আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন।

ঠোঁট ফাটার ক্রিম

ঠোঁট ফাটার ক্রিম সম্পর্কে আমরা তো সকলেই কমবেশি জানি। কিন্তু কোন ক্রিম ব্যাবহারের ফলে আপনার ঠোঁট দ্রুত ঠিক হয়ে উঠবে এই বিষয়ে আপনি নিশ্চই অবগত নন। ঠোঁট ফাটার ক্রিম আমরা সকলেই ব্যাবহার করে থাকলেউ এমন অনেকেই আছি এই সম্পর্কে জানতে চান। তাহলে চলুন এখন জেনে নেই ঠোঁট ফাটার ক্রিম সম্পর্কে।

ভ্যাসলিন ক্রিমটাও ঠোঁট ফাটা রোধ করার জন্য অনেকভালো কাজ করে থাকে। আপনি এই ক্রিম টা কিনে নিয়ে ব্যাবহার করতে পারেন। ভ্যাসলিন ক্রিম ছোট টার দাম ১৫ টাকা। এটি আপনি বাজারের যেকোন কসমেটিক্সের দোকানে গেলেই খুব সহজেই পেয়ে যাবেন।

ঠোঁট ফাটাঁ রোধ করতে সবথেকে ভাল হয় মেরিল পেট্রোলিয়াম জেলির ব্যাবহার করা। এই ক্রিমটাও আপনি বাজারের যেকোন কসমেটিক্সের দোকানে গেলেই খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। এটি আপনার ঠোঁট ফাটা রোধ করার জন্য অনেকভালো কাজ করে থাকবে। এই মেরিল পেট্রোলিয়াম জেলির দাম নিবে ২৫ টাকা।

আপনি আপনার Pure lip protection এর জন্য কোহিনুর কেমিক্যাল কোম্পানির FRUITY Chap Stick ব্যাবহার করতে পারেন। এই ক্রিমটাও আপনি বাজারের যেকোন কসমেটিক্সের দোকানে গেলেই খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। এই ক্রিমটার দাম নিবে হয়তো ৪০ টাকা কি ৪৫ টাকা।

মন্তব্যঃ শীতকালে ঠোঁট এবং গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার

আজকে আমাদের এই আর্টিকেলের প্রধান আলচ্য বিষয় ছিলো শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে। আশা করছি আপনি পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ে শীতকালে ঠোঁট ও গায়ের চামড়া ফেটে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ও বুঝতে পেরেছেন।

এই আর্টিকেলটি পড়ে যদি আপনি উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না। এরকম আরো তথ্যবহুল আর্টিকেল পড়ার জন্য প্রতিদিন নিয়োমিত আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। এবং নিচে আপনার জিমেইল দিয়ে সবস্ক্রাইব করে আমাদের সাথেই থাকুন। ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

পেপারস্পট২৪ এর নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url