পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান

নতুন মিটারের জন্য অনলাইনে আবেদনপ্রিয় পাঠক, পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের আবেদন অনুসন্ধান সম্পর্কে আপনি কি জানতে ইচ্ছুক? যদি এটাই হয়ে থাকে আপনার জানার ইচ্ছা তাহলে আপনি এখন একদম সঠিক জায়গাতেই রয়েছেন। কারণ আজকে আমরা পল্লী বিদ্যুৎতের মিটারের আবেদন অনুসন্ধান করতে হয় কিভাবে সেটা আমরা আপনাদের সাথেই শেয়ার করবো।
পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান
বর্তমান সময়ে অনলাইনে মিটারের আবেদন করার পাশাপাশি আবেদনের বর্তমান অবস্থা অনুসন্ধানের ব্যাবস্থা ও রয়েছে। এটি মাধ্যমে আপনার আবেদনটি গ্রহণ করা হয়েছে নাকি বাতিল করা হয়েছে সেই বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

পেজ সূচিপত্রঃ পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান

মিটারের আবেদন অনুসন্ধান আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে পল্লী বিদ্যুতের মিটারের আবেদনের অবস্থা অনুসন্ধান করে জানতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে কিছু ধাপের নিয়মের মধ্য দিয়ে যেতে হবে। সেই সকল নিয়মগুলো আমরা আজকের নিম্নে বর্ণনা করব। কিভাবে আপনি পড়লে নিজেকে মিটার অনুসন্ধান করবেন তার জন্য আপনাকে নিম্নের ধাপগুলো অবলম্বন করতে হবে।
  • প্রথমে আপনাকে www.rebpbs.com এই ওয়েবসাইটের মধ্যে ভিজিট করতে হবে
  • এরপর সেখানে গিয়ে আবেদন করার সময় আপনি যে আইডি নাম্বার এবং ট্রাকিং নাম্বার দিয়েছিলেন এবং তার সাথে যে পিন নাম্বার দিয়েছিলেন সেটি দিতে হবে।
  • সর্বশেষ সেখানে মিটার আবেদন অনুসন্ধান করার জন্য "সাবমিট" বাটনে ক্লিক করতে হবে
বর্তমান সময়ে যেমন অনলাইনে মিটারের জন্য আবেদন ব্যবস্থা রয়েছে তেমনি রয়েছে অনলাইনের মাধ্যমে আপনার পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের আবেদন আদৌ গ্রহণ করা হয়েছে নাকি বাতিল করা হয়েছে সেটি অনুসন্ধান করে জানতে পারবেন। তবে আপনাকে অনলাইনে আবেদন করার সময় কিছু নিয়ম এবং শর্ত মেনে চলতে হবে।

অনলাইনে মিটারের আবেদন করার সময় আপনি যে ট্রাকিং নাম্বার এবং পিন নম্বর প্রদান করা হয় এই ট্রাকিং নাম্বার এবং পিন নাম্বার দিয়ে বরং আপনি মিটারের মাধ্যমে অবস্থা অনুসন্ধান করে জানতে পারবেন। চলুন তাহলে এখন কিভাবে আপনার পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান করবেন সেটি সম্পর্কে স্টেপ বাই স্টেপ জেনে নেওয়া যাক।

স্টেপ-০১ঃ আপনার পল্লী বিদ্যুৎ মিটার এর আবেদনের বর্ধমান অবস্থা জানতে আপনাকে প্রথমে ভিজিট করতে হবে www.rebpbs.com এই ওয়েবসাইটের মধ্যে। আপনি যদি এই ওয়েবসাইটের মধ্যে প্রবেশ করেন তাহলে তাদের একটা নিজস্ব ওয়েবসাইটের মধ্যে প্রবেশ করে চলে যাবেন। এখানে গিয়ে প্রথমে আপনি ম্যানুয়াল থেকে "আবেদন" অপশন দেখতে পাবেন।

এই মেনু বারের আবেদন অপশনে কম্পিউটারের মানুষের রাখলে কিছু অপশন দেখতে পাবেন। এখান থেকে সবার শেষের উপরের অপশন "আবেদনের সর্বশেষ অবস্থা জানুন" এই অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে পরবর্তীতে আপনার আবেদন অনুসন্ধান করার জন্য পরবর্তী পেস্টে চলে আসবে।
পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান
স্টেপ-০২ঃ "আবেদনের সর্বশেষ অবস্থা জানুন" এই অপশনটিতে ক্লিক করার পরে পরবর্তীতে আবেদন অনুসন্ধান করার জন্য একটি পেজ চলে আসবে। সেখানে প্রথমে আপনার টেকিং নাম্বার দিতে হবে। আর নিচের ঘরটিতে পিন নাম্বার দিতে হবে। এখানে সেই প্যাকিং নাম্বার এবং পিন নাম্বার যেতে হবে যেটি পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের আবেদন করার সময় আপনি দিয়েছিলেন।
পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান
স্টেপ-০৩ঃ এখানে ট্র্যাকিং নাম্বার এবং পেন নাম্বার দেওয়া হয়ে গেলে সবশেষ আপনাকে "সাবমিট" বাটনে ক্লিক করতে হবে। এখানে সাবমিট বাটনে ক্লিক করার পরে আপনার সামনে একটি পেজ ওপেন হবে। সেখানে মোট ১০ টি পর্যায়ে আপনি দেখতে পারবেন আপনার আবেদনের বর্তমান অবস্থা। অর্থাৎ আপনার আবেদন গৃহীত হয়েছে কিনা আর কতদূর পর্যন্ত আপনার আবেদনের কাজ চলছে সে সম্পর্কে জানতে পারবেন।

এ পরবর্তী পেজে দশটি অপশনের ভেতরে যে অপশনটিতে সবুজ টিক চিহ্ন দেওয়া থাকবে সেগুলো কার সম্পন্ন করা হয়েছে। আর যে অপশনটিতে সবুজ টিক চিহ্ন থাকবে না বরং লাল রং হয়ে থাকবে সেই কাজটি সম্পন্ন করা হয়নি। অর্থাৎ সে ধাপের কাজ চলমান রয়েছে। কাজ সম্পন্ন হয়ে গেলে লাল দাগ উঠে গিয়ে সবুজটির জন্য বসে যাবে।

এসএমএস অনুসন্ধান

মিটারের আবেদন অনুসন্ধান করে আপনি কি পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের বর্তমান অবস্থা এসএমএস অনুসন্ধান এর মধ্যমে জানতে চান? যদি আপনি এই সম্পর্কে জানার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করে থাকেন তাহলে এই পর্বটি আপনার জন্যই। আর এখানে দেখানো হবে কিভাবে আপনি এসএমএস অনুসন্ধান করতে পারবেন। চলুন তাহলে এই বিষয়ে সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

এসএমএস অনুসন্ধান করার জন্য এখানে ক্লিক করে ভিজিট করুন। এরপরে সেখানে দেখবেন আপনার কাছে থেকে ট্রাকিং নাম্বার এবং পিন নাম্বার চাইছে। সেই তথ্যগুলো প্রদান করুন। এরপরে "সাবমিট করুন" বাটনে ক্লিক করুন। এভাবেই আপনি এসএমএস অনুসন্ধান করে দেখতে পারবেন।
পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন ফরম

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান, আপনাদের মধ্যে এমন অনেকে রয়েছেন মিটারের জন্য আবেদন করতে চান। কিন্তু অনলাইনের মাধ্যমে কিভাবে ফরম পূরণ করে আবেদন করতে হয় সে সম্পর্কে কিছু জানেন না। অনলাইনের মাধ্যমে পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের জন্য আবেদন করতে সবার প্রথমে যে কাজটি সেটি হল সঠিকভাবে ফরম পূরণ করা। আবেদন করার পূর্ব শর্তই হলো এটি সঠিকভাবে পরম পূরণ করতে হবে।

ধরমবরণ করার জন্য প্রথমে আপনাকে অনলাইনের মাধ্যমে মোবাইল থেকে অথবা কম্পিউটার থেকে ভিজিট করতে হবে www.rebpbs.com এই ওয়েবসাইটের মধ্যে। এখানে গেলে আপনি নতুন মিটারের জন্য আবেদন করার ফরম পাবেন। কি কি তথ্য যে ফরম পূরণ করতে হয় সে সকল তথ্য জেনে নিন।
  • নতুন মিটারের আবেদন করার ফরমে প্রবেশ করুন
  • আবেদনকারী ব্যক্তির বিবরণ প্রদান করুন
  • বিদ্যুৎ সংযোগের স্থান এবং ঠিকানা দিন
  • বিদ্যুতের পুল থেকে মিটার নেওয়ার স্থানের দূরত্ব কতটুকু সেটি লিখুন
  • জিওগ্রাফিকাল তথ্য দিন
  • সকল প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সংযুক্ত করুন
  • সকল তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করা হয়ে গেলে আবেদনটি সাবমিট করুন
  • আবেদনের পিডিএফ কবে ডাউনলোড করে নিয়ে প্রিন্ট করে নিন
  • হাউজ ওয়ারিং নিশ্চিত করুন
  • আবেদন ফি জমা দিন
উপরের উল্লেখিত এই সকল নিয়মগুলো অনুসরণ করার মাধ্যমে অনলাইনের মাধ্যমে খুব সহজে আপনার বাড়ি অথবা দোকানের জন্য অথবা যে কোন প্রতিষ্ঠানের জন্য পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের আবেদন করে নিতে পারবেন। আশা করছি আপনি সকল বিষয় বিস্তারিত জানতে পেরেছেন।

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন করার নিয়ম

পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের আবেদন অনুসন্ধান করার পূর্বে অনলাইনে আবেদন করার জন্য প্রথমে আপনাকে মোবাইলে অথবা কম্পিউটার থেকে যে ব্যক্তি নামে অথবা আপনি যদি আবেদন করে থাকেন তাহলে আপনার ছবি এবং আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র আর তার সাথে আপনার যে জমে রয়েছে তার মালিকানা প্রমাণপত্র নির্দিষ্ট সাহায্য কম্পিউটারে ছবি তুলে নিন। এরপরে সেটিং নির্দিষ্ট সাইজের করে নিন।

তথ্য গোছানো হয়ে গেলে এরপর আপনাকে করতে হবে www.rebpbs.com পল্লী বিদ্যুতের এই ওয়েবসাইটের মধ্যে। তারপর সেখানে পল্লী বিদ্যুতিক মিটারের জন্য আবেদন করার একটি ফর্ম পেয়ে যাবেন। সেখানে আবেদনের সকল তথ্য পূরণ করেন সবশেষ আপনাকে বারের ওয়ারিং কাজ নিশ্চিত করতে হবে। ডকুমেন্ট যেগুলো লাগবে তার সাইজের ছবির সাইজের পরিমাপ গুলো নিম্নে দেওয়া হলো।
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি 300*300 পিক্সেল এবং সর্বোচ্চ সাইজ হবে 150 KB
  • ভোটার আইডি কার্ডের ক্ষেত্রে 600*475 পিক্সেল এবং সাইজ হবে সর্বোচ্চ 300 KB
  • খারিজ সনদের সর্বোচ্চ সাইজ হবে 700 KB
কিভাবে পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন করবেন সেটি সম্পর্কে এখন আপনাদেরকে বিস্তারিতভাবে সঠিক তথ্য জানানোর চেষ্টা করবো। চলুন তাহলে এখন জেনে নেওয়া যাক।

ধাপ-০১ঃ প্রথমে আপনার মোবাইল ফোন থেকে অথবা কম্পিউটার থেকে নিজের ইচ্ছামতো একটি ব্রাউজারে প্রবেশ করুন। তারপরে সার্চবারে গিয়ে টাইপ করুন www.rebpbs.com এখান থেকে মেনুবার থেকে "আবেদন" অপশানে ক্লিক করুন। তাহলেই পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের আবেদন করার জন্য একটি ফর্ম পেয়ে যাবেন।
পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান
এখানের নির্দেশনা অনুযায়ি সকল তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করুন। আপনার এলাকাটি যেই পল্লি বিদ্যৎ সমিতির অধিনে সেটি প্রথমে সিলেক্ট করুন। এরপরে আপনাকে জোনাল অফিস সিলেক্ট করতে হবে। আপনার বাসা বাড়ি যদি একক হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে আবাসিক সিলেক্ট করতে হবে। তাছাড়া অন্যটি সিলেক্ট করতে হবে।

এরপরে যেই ব্যাক্তি পল্লী বিদ্যুৎ মিটারের জন্য আবেদন করছেন প্রথমে তার নাম তার পিতার নাম মাতার নাম বাংলাতে লিখতে হবে। আর যেসকল তথ্য এখানে ইংরেজিতে লিখতে বলা হয়েছে সেগুলো ইংরেজিতে লিখতে হবে। এখানের সকল নির্দেশনা অনুযায়ি আপনাকে তথ্যগুলো পূরণ করতে হবে।
পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান
সকল ডকুমেন্ট আপলোড করার পরে, এই ফর্মের সকল তথ্যগুলো পূরণ করা হয়ে গেলে নিচে একটি ইউম্যান ভেরিফিকেশানের কোড পাবেন। সেটি নিচের ঘরে লিখতে হবে। এরপরে "সংরক্ষণ করুন" এই বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ-০২ঃ অনলাইনের মাধ্যমে আপনার পল্লী বিদ্যুৎ মিটার এর আবেদন করার পরে সেটা যখন সংরক্ষণ করা হয়ে যাবে এখান থেকে আপনি একটি ট্রাকিং নম্বর এবং একটি পিন নাম্বার পাবেন। এই দুটি নাম্বার আপনি খুব যত্ন সহকারে সংরক্ষণ করে রাখুন। এরপরে ফর্ম এর পিডিএফ কবে পেয়ে যাবেন। এই পিডিএফ কপি ডাউনলোড করে নিয়ে প্রিন্ট করে নিন।

ধাপ-০৩ঃ এইভাবে এসে আপনাকে আপনার বাড়ির যে বিদ্যুৎ ওয়ারিং এর কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে সেটি নিশ্চিত করতে হবে। আর এটা নিশ্চিত করার জন্য আপনার অবশ্যই প্রয়োজন হবে গ্রাউন্ড ক্রয় করেছিলেন যে তার মেমো, আপনার ট্রাকিং নাম্বার এবং পিন নাম্বার। এর জন্য আপনি প্রথমে মেনুবার থেকে আবেদন অপশনে যান। তারপরে "হাউজ ওয়্যারিং নিশ্চিত করুন" এই অপশানে প্রবেশ করুন।

আবেদন অপশান > হাউজ ওয়্যারিং নিশ্চিত করুন > ট্রাকিং নাম্বার এবং পিন নাম্বার দিন > সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন

পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান সম্পর্কে সাধারণ জিজ্ঞাসা (FAQ)

প্রশ্নঃ বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন ফি কত?
উত্তরঃ বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন ফি মাত্র ১৫০ টাকা।

প্রশ্নঃ বিদ্যুতের মিটারের জন্য আবেদন করতে কি কি লাগে?
উত্তরঃ বিদ্যুতের মিটারের জন্য আবেদন করতে যেসকল ডকুমেন্টসের প্রয়োজন হয় সেগুলো হলো
  • আবেদনকারী ব্যাক্তির নাম
  • আবেদনকারির সচল মোবাইল নাম্বার
  • ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার
  • স্থায়ী ঠিকানা
  • জমি খারিজের তথ্য
প্রশ্নঃ বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড কত সালে প্রতিষ্ঠিত হয়?
উত্তরঃ বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড ১৯৭৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

প্রশ্নঃ বৈদ্যুতিক মিটার পরিবর্তন করা যাবে কি?
উত্তরঃ হ্যা পরিবর্তন করা যাবে। এজন্য আপনাকে প্রথমে নতুন মিটারের জন্য আবেদন করতে হবে। আর তারপরে আপনার পূর্বের পুরাতন মিটার ফেরত দিতে হবে যেদিন আপনি নতুন মিটার পাবেন। এভাবেই আপনার মিটার পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।

লেখকের মন্তব্য। পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান

আজকে আমাদের এই আর্টিকেলের মধ্যে আমরা পল্লী বিদ্যুৎ মিটার আবেদন অনুসন্ধান কিভাবে করতে হয় তার সম্পূর্ণ নিয়ম জানিয়েছি। আপনার যদি আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না। এরকম তথ্যবহুল আর্টিকেল প্রতিদিন ফ্রীতে পড়ার জন্য আমাদের সাথেই থাকুন। ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

পেপারস্পট২৪ এর নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url