বিআরটিএ ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার

অনলাইন ড্রাইভিং লাইসেন্স চেকপ্রিয় পাঠক, আপনি ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার দিয়ে খুব সহজেই আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে পারবেন। আবার তার পাশাপাশি আপনি অন্যের টা চেক করা সহ আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সটি প্রিন্ট হয়েছে কিনা, আপনার হাতে আসতে আর কতদিন সময় লাগবে সেই সম্পর্কে জানতে পারবেন। তাই আপনি যদি বিআরটিএ ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার সম্পর্কে জানতে চান তাহলে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ুন।
ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার
আপনি যদি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকেন তাহলে রেফারেন্স নাম্বার দিয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক, মোবাইল নাম্বার দিয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক এবং অনলাইনে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক সম্পর্কে জানতে পারবেন।

পেজ সূচিপত্রঃ

ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক

বর্তমান সময় এমন একটি পর্যায় যেখানে বৈধ উপায়ে একটি ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করা অনেকটাই কঠিন। আর সেজন্যই বেশিরভাগ মানুষজনকে ড্রাইভিং লাইসেন্স করার জন্য দালাল চক্রের হাতে পরতে হয়। তবে আপনি চাইলে আপনারে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জন্য আবেদন বাড়িতে বসে থেকেই করতে পারেন। এছাড়াও আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সের চেক বাড়িতে বসে থেকেই করতে পারেন। বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার জন্য তিনটি পদ্ধতি চালু রয়েছে। সেগুলো হলো
  • BRTA DL Checker সফটওয়্যার
  • রেফারেল নাম্বার ব্যাবহার করে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক
  • এসএমএস এর মাধ্যমে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক
এই তিনটি মাধ্যমে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর কাজ সম্পন্ন হয়েছে কিনা। ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য কাজ হলেও সেই কাজ কতদূর। অথবা বিতরণের জন্য আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স এখনো রেডি কিনা। এছাড়াও এখান থেকে জানতে পারবেন আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স এর স্মার্ট কার্ড এখনো তৈরি হয়েছে কিনা। যদি আপনি আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে চান তাহলে ওপরের এই তিনটি মাধ্যমেই আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সটি চেক করে নিতে পারবেন।

ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার

বিআরটিএ ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার এর নাম হলো BRTA DL Checker। আপনি যদি মোবাইল ফোনের প্লে স্টোর থেকে BRTA DL Checker লিখে সার্চ করেন তাহলে সেখানে খুব সহজে আপনি পেয়ে যাবেন। সেখান থেকে প্রথমে আপনাকে এই সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিতে হবে। তারপরে এটি আপনাকে ইন্সটল করে নিতে হবে। এরপরে কিভাবে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করবেন সেটি নিম্নে ধাপে ধাপে বিস্তারিত দেখানো হলো।

ধাপ-০১ঃ প্রথমে আপনাকে আপনার ফোনের প্লে স্টোরে প্রবেশ করতে হবে। এর পরে সেখানে সার্চ বাটনে গিয়ে BRTA DL Checker লিখে সার্চ করুন। সবার প্রথমেই আপনি এই সফটওয়্যারটি পেয়ে যাবেন। সেখান থেকে ডাউনলোড করে নিন। অথবা আপনি চাইলে নিম্নের ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে সরাসরি ডাউনলোড করে নিতে পারেন। তাহলে নিম্নের ছবির মতো সফটওয়্যার দেখতে পেয়ে যাবেন। সেটি ডাউনলোড করে নিন।
ধাপ-০২ঃ এরপরে আপনি যখন এই সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে ওপেন করবেন তখন নিচের ছবির দেখানো মতো ইন্টারফেস পেয়ে যাবেন। এখানে এসে আপনাকে সবার প্রথমে দিতে হবে BRTA Reference No এর পরে আপনি যখন আপনার Date of Birth সঠিকভাবে পূরণ করে নিচের সার্চ বাটনে ক্লিক করবেন তখন আপনি সেখানে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সটি দেখতে পেয়ে যাবেন।
ধাপ-০৩ঃ আপনি যদি আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সের স্মার্ট কার্ড হাতে নাও পেয়ে থাকেন তাহলেও আপনি এখানে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স দেখতে পেয়ে যাবেন। এই লাইসেন্সে আপনার নাম, ঠিকানা, জন্ম সাল এবং তারিখ, লাইসেন্সের মেয়াদ, ইস্যুকারী কর্তৃপক্ষ, লাইসেন্স নবায়নের তারিখ এই সকল কিছু এখানে দেখতে পেয়ে যাবেন। নিচের দেখানো ছবির মতো।
আর এভাবেই আপনি বাংলাদেশের বিআরটিএ ড্রাইভিং লাইসেন্স এর চেক করতে যে সফটওয়্যার রয়েছে সেটি ব্যাবহার করে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সটি চেক করে নিতে পারবেন খুব সহজেই। আশা করছি আপনি সম্পূর্ণ বুঝতে পেরেছেন। তাহলে চলুন এবার আমরা আজকের এই আর্টিকেলের পরবর্তি অংশে যাই।

রেফারেন্স নাম্বার দিয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক

আমরা সকলেই ইতিপূর্বে বিআরটিএ ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার দিয়ে কিভাবে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে হয় সেই সম্পর্কে বিস্তারিত জেনেছি। এখন এই পর্বে আমরা সকলেই রেফারেন্স নাম্বার দিয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করবেন কিভাবে সেই সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো। তাহলে চলুন আর বেশি দেরি না করে বিস্তারিত আলোচনায় প্রবেশ করা যাক।
ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার
মাত্র কয়েক বছর আগেও যেখানে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার জন্য বিআরটিএ অফিসে প্রতিনিয়ত দৌড়াদৌড়ি করা লাগতো সেখানে এখন বর্তমান সময়ে আপনি ঘরে বসেই আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করে নিতে পারবেন। এর পাশাপাশি আপনি জানতে পারবেন আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স কি এখনো কতদূর পর্যন্ত কাজ হয়েছে। আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রিন্ট করা হয়েছে কিনা সকল বিষয়ে আপনি ঘরে বসে থেকেই তথ্য জানতে পারবেন।

আপনার কাছে থাকা রেফারেন্স নাম্বার ব্যবহার করে আপনি ঘরে বসে থেকেই মোট দুটি পদ্ধতি অবলম্বন করে আপনি ড্রাইভিং লাইসেন্সটি চেক করে নিতে পারবেন। সেই দুটি পদ্ধতি হলো
  • বিআরটিএ এর ওয়েবসাইট ব্যবহার করার মাধ্যমে
  • মোবাইল ফোনে মেসেজ করার মাধ্যমে
বিআরটিএ এর ওয়েবসাইট ব্যবহার করার মাধ্যমেঃ এটির জন্য ভাবার প্রথমে আপনাকে মোবাইল ফোন থেকে যেকোনো একটি ব্রাউজার ওপেন করে নিতে হবে। এর পরে আপনাকে ব্রাউজার এর সার্চ বক্সে গিয়ে লিখতে হবে my.brta.gov.bd এখন আপনি এই ওয়েবসাইট প্রথমে পেয়ে যাবেন। এই ওয়েবসাইটের মধ্যে আপনাকে প্রবেশ করতে হবে। তারপরে এখানে এসে আপনার রেফারেন্স নাম্বার প্রথমে দিতে হবে। এর পরে আপনাকে আপনার জন্ম সাল তারিখ এবং মাস উল্লেখ করতে হবে।

সকল তথ্যগুলো সঠিকভাবে দেওয়ার পরে যখন আপনি সার্চ বাটনে ক্লিক করবেন তারপরে আপনি জানতে পারবেন আপনার সেই ড্রাইভিং লাইসেন্স কোন অবস্থাতে রয়েছে। যদি আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সটির বিতরণ করার জন্য প্রস্তুত হয়ে যায় তাহলে সেটিও এখান থেকে জেনে নিতে পারবেন।
মোবাইল ফোনে মেসেজ করার মাধ্যমেঃ মোবাইল ফোনে মেসেজ করার মাধ্যমে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করতে হলে সবার প্রথমে আপনাকে মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে যেতে হবে। এরপর সেখানে গিয়ে লিখতে হবে DL<Space>Refrence no। তারপরে সেই মেসেজ সেন্ড করে দিতে হবে 26969 নাম্বারে।

উদাহরণস্বরূপঃ DL DP2P026 এরপরে সেন্ড করতে হবে 26969 নাম্বারে।

আপনি যখন তাদেরকে মেসেজ পাঠাবেন এরপরে কিছুক্ষণের মধ্যে তাদের কাছে থেকে একটি ফিরতি মেসেজ পাবেন। সেখানে থেকে আপনি আপনার লাইসেন্সের সকল তথ্যগুলো জানতে পারবেন। এই মেসেজের মাধ্যমে আপনাকে জানিয়ে দেয়া হবে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স বর্তমানে কোন অবস্থায় রয়েছে।

মোবাইল নাম্বার দিয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক

বিআরটিএ ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার সম্পর্কে জানার পরেও আবার অনেকেই জানতে চান মোবাইল নাম্বার দিয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সম্পর্কে। কেননা অনেকেই শুধুমাত্র মোবাইল নাম্বার দিয়ে তাদের ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করে নিতে চান। আপনি এই কাজটি কিভাবে করবেন করুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক।

মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করে ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করা হলো মূলত মেসেজ করার মাধ্যমে চেক করা। এর জন্য আপনি ড্রাইভিং লাইসেন্স করার সময় যেই মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করেছিলেন সেই মোবাইল নাম্বার থেকে আপনাকে তাদেরকে মেসেজ করতে হবে। কিভাবে মেসেজ করে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স সম্পর্কে জানবেন সেটি হল
  • প্রথমে আপনাকে মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখতে হবে DL<Space>Refrence no তারপরে সেটি পাঠিয়ে দিতে হবে 26969 নাম্বারে।
  • উদাহরণস্বরূপঃ DL DP2P026 এরপরে এটি পাঠিয়ে দিন 26969 নাম্বারে।
  • এরপরে আপনাকে বিআরটিএ অফিস থেকে ফিরতি একটি মেসেজের মাধ্যমে আপনাকে জানিয়ে দেওয়া হবে আপনার লাইসেন্সের সম্পর্কে। বর্তমান সময়ে আপনার লাইসেন্স কোন অবস্থায় রয়েছে সেগুলো সম্পর্কেও জানিয়ে দেওয়া হবে।
আশা করছি আপনি এখন বুঝতে পেরে গেছেন কিভাবে আপনি আপনার মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করেই আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করবেন সেই সম্পর্কে। এই সম্পর্কে যদি কোন কিছু জিজ্ঞাসা থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করার মাধ্যমে জানাবেন। আমরা আপনাকে যথাযথ সহযোগিতা করার চেষ্টা করব।

ড্রাইভিং লাইসেন্স হারিয়ে গেলে করণীয় কি

বর্তমান সময়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স শাখা গাড়ি চালানো যায় না। তাই আপনি যখন ড্রাইভিং লাইসেন্স করেন তখন অবশ্যই আপনার বিআরটিএ ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার সম্পর্কে জানা প্রয়োজন। যেটি সম্পর্কে আমরা ইতিপূর্বে আলোচনা করেছি। এখন আসি আপনি যদি আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সটি হারিয়ে ফেলেন তাহলে সে ক্ষেত্রে আপনার করণীয় কি হবে। চলুন এই সম্পর্কে তাহলে বিস্তারিত ধারনা নেওয়া যাক।
আপনি যে সকল কাজগুলো করার মাধ্যমে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স ফিরে পেতে পারেন সেই সকল কাজগুলো নিম্নে উল্লেখ করা হলো।
  • যদি আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স হারিয়ে গিয়ে থাকেন তাহলে এক্ষেত্রে সবার প্রথমে আপনার কাজ হবে আপনার নিকটস্থ থানায় গিয়ে সাধারণ ডায়েরি বা জিডি করা।
  • এরপরে আপনাকে ট্রাফিক পুলিশের কাছে থেকে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সের বিরুদ্ধে কোন মামলা রয়েছে কিনা সে সম্পর্কে তাদের পুলিশের থেকে ক্লিয়ারেন্স নিতে হবে।
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ডুপ্লিকেট কপি আপনি এমন অবস্থায় ব্যবহার করতে পারেন। তবে এর জন্য আপনাকে পুনরায় বিআরটিএ অফিসে গিয়ে আবেদন করতে হবে।
বিআরটিএ অফিসে গিয়ে ডুপ্লিকেট ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য আবেদন করতে যে সকল কাগজপত্র লাগবে সেগুলো হলো
  • একটি আবেদন ফরম
  • থানায় আপনাদের সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন তার একটি ফটোকপি
  • ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি
  • আপনার পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবি
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স তৈরি করার জন্য নির্ধারিত ফি এর রশিদ
  • ডুপ্লিকেট ড্রাইভিং লাইসেন্স নেওয়ার জন্য ৮৭৫ টাকা সরকার নির্ধারিত ফি

ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার সম্পর্কে সাধারণ জিজ্ঞাসা (FAQ)

প্রশ্নঃ ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করব কিভাবে?
উত্তরঃ BRTA DL Checker সফটওয়্যার ব্যাবহার করার মাধ্যমে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সটি চেক করে নিতে পারবেন। এছাড়াও মোবাইলে মেসেজ করার মাধ্যমেও আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্সটি চেক করার সম্ভব।

প্রশ্নঃ ড্রাইভিং লাইসেন্স কত প্রকার কি কি?
উত্তরঃ বাংলাদেশে ড্রাইভিং লাইসেন্সটি সাধারণত ৫ ধরণের হয়ে থাকে। সেগুলো হলো
  • শিক্ষানবিস লাইসেন্স
  • অপেশাদার লাইসেন্স
  • পেশাদার লাইসেন্স
  • ইন্সট্রাক্টর লাইসেন্স
  • পিএসভি লাইসেন্স
প্রশ্নঃ ড্রাইভিং লাইসেন্স করার জন্য কি কি প্রয়োজন?
উত্তরঃ ড্রাইভিং লাইসেন্স করতে হলে নিচের তথ্যগুলো প্রয়োজন হবে। সেগুলো হলো
  • নূন্যতম বয়স ১৮ বছর
  • ভোটার আইডি কার্ড
  • শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেট
  • পাসপোর্ট সাইজের দুই কপি ছবি
  • স্ট্যাম্প সাইজের ছবি
  • নাগরিকত্বে সনদ

সর্বশেষ বক্তব্য

বিআরটিএ ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করার সফটওয়্যার ব্যাবহার করে কিভাবে আপনার ড্রাইভিং লাইসেন্স চেক করবেন সেই সম্পর্কে আমরা আজকের এই আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এছাড়াও আরো অনেক টপিক নিয়ে আলোচনা করেছি। আশা করছি আপনি সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ার মাধ্যমে এই বিষয়ে বিস্তারিত জানতে এবং বুঝতে পেরেছেন। এটি আপনার বন্ধুদের সাথেও শেয়ার করতে পারেন। তাতে করে তাদেরও অনেকটা উপকার হবে। আর্টিকেলটি আপনার কাছে কেমন লেগেছে সেই বিষয়ে কমেন্ট করার মাধ্যমে আমাদের জানাবেন। এমনই আরো তথ্যবহুল আর্টিকেল প্রতিদিন পড়ার জন্য আমাদের সাথেই থাকুন। ধন্যবাদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

পেপারস্পট২৪ এর নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url